ফেইসবুক মার্কেটিং কি ? ফেইসবুক মার্কেটিং করার ৫টি ধাপ জানুন

ফেইসবুক মার্কেটিং

ফেইসবুক মার্কেটিং কি ? ফেইসবুক মার্কেটিং করার ৫টি ধাপ জানুন

Facebook Marketing বা ফেইসবুক মার্কেটিং বলতে আমরা কি বুঝি ?  এর কয়েকটি ধাপ জানার জন্যই মূলত আজকের আর্টিকেল রাইটিং। 
 
বর্তমানে অনলাইনে আয় করার জন্য ফেইসবুক পেজ, ফেইসবুক গ্রুপ অনেক বেশি ব্যবহৃত হচ্ছে। আর এসব জায়গাতে নিজের অবস্থান ভালো করার জন্যই মূলত ফেইসবুক মার্কেটিং জানতে হয়। 
 
ফেইসবুক মার্কেটিং কি ? ফেইসবুক মার্কেটিং করার ৫টি ধাপ জানুন


সবার আগে জানা যাক মার্কেটিং কি জিনিস। আমরা না জেনে সবািই বিষয় ব্যবহার করি বা নিজেই কাজে লাগাই নিজেদের। হয়তো এটা নিশ্চিত করে জানি না যে এটাকেই বলে মার্কেটিং। 

 
মার্কেটিং বলতে আমরা যা বুঝি তা হলো, অনলাইনে বা অফলাইনে কোন কিছুর পরিচিতি বাড়ানো। আপনি যদি কোন পণ্যের পরিচিত বাড়ান তাহলে সেটাকে বলা হবে সেই পণ্যের মার্কেটিং। 
 
আর যদি আপনি নিজের পরিচিতি বাড়ান তাহলে সেটাকে বলা হবে পারসোনাল মার্কেটিং। বর্তমানে যদিও পারসোনাল মার্কেটিং এর পরিমাণটা অনেকটাই বেশি লক্ষ্য করা যায়। 
 

ফেইসবুক মার্কেটিং কাকে বলে ? 

ফেইসবুকের মাধ্যমে কোন পন্য, সেবা, কোন পণ্যের প্রমোশান, কোন প্রডাক্ট এর সেল, কোন কিছুর মার্কেটিং করা হয়, তাকেই মূলত ফেইসবুক মার্কেটিং বলা হয়। 
 
এখানে ফেইসবুক ব্যভহার করে সেই পণ্য বা সেবার প্রচার-প্রচারণা চালানো হবে। আমরা বর্তমানে বেশির ভাগই কোন কিছুর প্রচার চালনার জন্য এই পদ্ধতিটা ব্যবহার করে থাকি। 
 
আমাদের দেশ তো উন্নয়নশীল দেশ এখানে প্রায় ৫০% লোক অনলাইন মার্কেটিং করে থাকে গড়ে। তবে বর্তমানে এই সংখ্যাটা আরও বাড়তেছে। ইদানিং অনেক বেশি মানুষ অনলাইনের উপর নির্ভরশীল। 
 
এই মার্কেটিং করার ৫টি ধাপ নিচে দেওয়া হলো। 
১. পেজের মাধ্যমে মার্কেটিং করা 
২. আইডির মাধ্যমে মার্কেটিং করা 
৩. গ্রুপের মাধ্যমে মার্কেটিং করা 
৪. ইনফ্লয়েন্সার এর মাধ্যমে মার্কেটিং করা 
৫. অ্যাডস রান করার মাধ্যমে মার্কেটিং করা 
 
আমি বোঝার জন্য নিচে কিছু বর্ননা দিয়ে দিচ্ছি। যেন আপনারা বুঝতে পারেন এই ধরনের মার্কেটিং আসলে কি এবং কিভাবে করতে হয়। এখানে প্রত্যেকটি ধাপ বা প্রত্যেকটি বিষয়ই গুরুত্বপূর্ণ। 
 

১. পেজের মাধ্যমে মার্কেটিং করা 

অনলাইনে বর্তমানে মার্কেটিং করা মানেই হলো পেজের মাধ্যমে বিভিন্ন তথ্য ও উপাত্ত শেয়ার করা এবং এর মাধ্যমেই সেই পণ্য এর রিভিও দেয়। এখন তো পেজের রিভিও সিস্টেম চালু আছে। 
 

২. আইডির মাধ্যমে মার্কেটিং করা 

আইডিগুলো রান করার পর পপুলার হওয়ার বা করার জন্য বেশ খানিকটা সময় লাগে। তবে পপুলার হলে সেগুলো দিয়েও মার্কেটিং করা যায়। এটা এক ধরনের ইনফ্লয়েন্সারের মতই কাজ করে থাকে। 

৩. গ্রুপের মাধ্যমে মার্কেটিং করা 

ফেসবুক পেজ আর গ্রুপের মার্কেটিংটা প্রায় একই ধরনের মার্কেটিং। এখানে পেজের যেমন একাধিক এডমিন বা মোডারেটর দ্বারা কাজ করা যায় তেমনি গ্রুপও একাধিক এডমিন বা মোডারেটর দিয়ে কাজ করানো যায়। 

৪. ইনফ্লয়েন্সার এর মাধ্যমে মার্কেটিং করা 

ইনফ্লয়েন্সার মূলত কোন পণ্য বা সেবা নিয়ে আগ্রহী করে তোলে। অনেক সময় সেই জিনিসের সুবিধাগুলো এমনভাবে উপস্থাপন করে থাকে তারা যেন সেটা অনেক বেশি সুবিধার সবার কাছে। 


৫. অ্যাডস রান করার মাধ্যমে মার্কেটিং করা 

ফেসবুক মানুষের চাহিদার উপর নির্ভর করে এই ধরনের কাজ হাতে নিয়েছে। এখানে আপনি বিভিন্ন ধরনের অ্যাডস রান করার মাধ্যমেও মার্কেটিং করতে পারেন। আগে আমরা বিষয়টা টিভি মিডিয়াতে লক্ষ্য করতাম। 
 
যা বর্তমানে অনলাইনের সুবিধার জন্য অনলাইন হয়ে গেছে। টিভি মিডিয়াতে গ্রাহন বা শ্রোতা কম থাকার কারণে বর্তমানে অনেক বেশি আগ্রহী শ্রোতাগুলো অনলাইন মিডিয়ার প্রতি। 

About ডিজিটাল আইটি সেবা

ডিজিটাল আইটি সেবা অনলাইন ভিত্তিক সেবা মূলক প্রতিষ্টান। এখানে অনলাইনে আয়, ডিজিটাল শিক্ষা, ফেইসবুক মার্কেটিং সহ আরও অনেক কাজের ধারণা প্রদান করা হয়। এটি দেশের আর্থিক সামাজিক অবস্থার উন্নতির জন্য কাজ করে থাকে।

View all posts by ডিজিটাল আইটি সেবা →

2 Comments on “ফেইসবুক মার্কেটিং কি ? ফেইসবুক মার্কেটিং করার ৫টি ধাপ জানুন”

Leave a Reply

Your email address will not be published.