দ্রুত গুগল অ্যাডসেন্স অ্যাপ্রুভাল পাওয়ার ১২ টি টিপস

দ্রুত গুগল অ্যাডসেন্স

দ্রুত গুগল অ্যাডসেন্স অ্যাপ্রুভাল পাওয়ার ১২ টি টিপস

দ্রুত গুগল অ্যাডসেন্স অ্যাপ্রুভাল আমরা সবাই ই চেষ্টা করে থাকি। বর্তমানে Google AdSense Approval অনেকটাই কঠিন হয়ে গেচে। অনলাইনে আয় করার জন্য Google AdSense অন্যতম একটি উপায়।

দ্রুত গুগল অ্যাডসেন্স
কিভাবে অনেক সহজেই পেয়ে যাবেন গুগল এডসেন্স এপ্রুভাল ? How To Get Fast Adsense Approval In Bangla. এমন অনেকেই আছেন, যারা Google AdSense থেকে বিপুল পরিমানে ইনকাম করছেন।

প্রত্যেক ব্লগার তার ওয়েবসাইটের মাধ্যমে কিছু টাকা রোজগার করার উদ্দেশ্যে তার ওয়েবসাইটে কাজ করে থাকেন। আর ওয়েবসাইট থেকে আয় করার সেরা একটি উপায় হচ্ছে গুগল অ্যাডসেন্স (Google Adsense)।

 

দ্রুত গুগল অ্যাডসেন্স ওয়েবসাইটে আর্টিকেল লিখে আয় করার ক্ষেত্রে দারুন একটু উপায়। এক্ষেত্রে প্রত্যেকে দ্রুত গুগল অ্যাডসেন্স এপ্রুভাল পাওয়ার উপায় এর সম্পর্কে জানতে চান। 

 

কিভাবে কি করলে, দ্রুত গুগল অ্যাডসেন্স পাওয়া যাবে এটা নিয়ে প্রত্যেক নতুন ব্লগারদের মাথায় সবসময় চিন্তা থাকে। ২০২১ সালের শেষে এসে একজন ব্লগারের Google Adsense পাওয়াটা অনেকটা কঠিন বলা চলে।

 

বিষয়টা খুব একটা কঠিন, এমন নয়। সময়ের সাথে সাথে প্রযুক্তির অনেক আপডেট হচ্ছে। সব প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানগুলো তাদের প্রযুক্তিতে এনেছে নতুন নতুন আপডেট। এক্ষেত্রে Adsense Company ও ভিন্ন কিছু নয়।

 

যদি আপনি তাদের বৈধ নিয়মগুলো অনুসরণ করে Google Adsense এর জন্য আবেদন করেন তবে অবশ্যই আপনি সহজে অনুমোদন পাবেন। কিন্তু যদি আপনি তাদের নিয়মনীতির বাহিরে গিয়ে কাজ করেন সেক্ষেত্রে আপনি বার বার রিজেক্ট খেতে থাকবেন।

 

তবে চিন্তার কিছু নেই, দ্রুত গুগল অ্যাডসেন্স এপ্রুভাল পাওয়ার উপায়’ গুলোর বিষয়ে আজকে আপনাদের বলবো। যদি আপনি এই বিষয়গুলো অনুসরণ করেন তাহলে আমার বিশ্বাস আপনি অবশ্যই দ্রুত গুগল অ্যাডসেন্স অপ্রুভাল বা Adsense Approval পাবেন।

১২টি টিপস নিচে দেওয়া হলো

নিচের পয়েন্টগুলো নিজের অভিজ্ঞতা থেকে নেওয়া হয়েছে। দ্রুত গুগল অ্যাডসেন্স পাওয়ার জন্য আপনি নিচের বিষয়গুলো ভালোমত লক্ষ্য করে ব্লগ সাইট তৈরি করতে পারেন।

আশা করবো প্রত্যেকটি পয়েন্ট অনেক বেশি উপকারে আসবে আপনার জন্য। আপনি যদি নতুন হোন তাহলে আপনার জন্য শুভকামনা রইল। ধন্যবাদ এবং নিচের পয়েন্টগুলো ভালো মত পড়ে বুঝে কাজ করবেন আশা করি।

 

১. টপ লেভেল ডোমেইন ব্যবহার করুন

দ্রুত গুগল অ্যাডসেন্স অ্যাপ্রুভাল বা Google Adsense এর অনুমোদন পেতে অবশ্যই একটি টপ লেভেল ডোমেইন ব্যবহার করুন। এমনটা নয় যে Blogspot ডোমেইন দিয়ে Adsense পাবেন না। অবশ্যই পাওয়া যায়, কিন্তু সেক্ষেত্রে আপনাকে একটু বেশি কষ্ট করতে হবে। যদি আপনি প্রথম এপ্লাই তে Adsense পাওয়ার আশা করেন তবে একটি ডোমেইন কিনে নিন। মাত্র ৯৫ টাকায় xyz ডোমেইন পাওয়া যায়। যদি আপনি .com, .net এর মত ডোমেইন কিনতে না পারেন তাহলে xyz কিনতে পারেন, সমস্যা নেই।

 

২. প্রিমিয়াম থিম ব্যবহার করুন 

আপনার সাইটের পেজ লোড স্পিড ঠিক রাখতে একটি ফাস্ট এবং প্রিমিয়াম থিম অবশ্যই ব্যবহার করুন। প্রিমিয়াম থিম ব্যবহার করলে বেশ কিছু সুবিধা আপনি পাবেন। তবে প্রিমিয়াম মানে পেইড থিমই ব্যবহার করতে হবে এমন নয়। অনেক ফ্রী প্রিমিয়াম থিম আছে, আপনারা সেগুলো ব্যবহার করতে পারেন। তবে প্রফেশনালি ব্লগিং করার ক্ষেত্রে অবশ্যই একটি পেইড থিম কিনে ব্যবহার করুন।

 

৩. পর্যাপ্ত পরিমাণ আর্টিকেল প্রকাশ করুন

ওয়েবসাইটে পর্যাপ্ত পরিমাণ আর্টিকেল পাবলিশ করে তারপর এডসেন্স এর জন্য আবেদন করুন। নতুন ব্লগাররা কয়েকটা আর্টিকেল প্রকাশ না করতেই Adsense Apply করতে চান। আর এমন ভুলের জন্যেই আপনারা অনুমোদন পান না। অন্তত ২০-২৫ টি আর্টিকেল পাবলিশ করুন, প্রত্যেকটি ৮০০-১০০০ শব্দের। এরপর আবেদন করুন, এতে আপনার এপ্রুভ হওয়ার সম্ভবনা বেড়ে যাবে অনেকটা।

 

৪. ওয়েবসাইট এসইও ফ্রেন্ডলি করুন

আপনার ওয়েবসাইটের ডিজাইন অবশ্যই এসইও ফ্রেন্ডলি হতে হবে। গুগল বেশিরভাগ প্রফেশনাল কাজকে গুরুত্ব দিয়ে থাকে। অর্থাৎ যার ওয়েবসাইট যতটা প্রফেশনাল মানের হবে ততটাই তার এডসেন্সের অনুমোদন পাওয়ার সম্ভবনা বেড়ে যাবে। আপনার সাইটের ডিজাইনের দিকে বিশেষ গুরুত্ব দিন।

দ্রুত গুগল অ্যাডসেন্স অ্যাপ্রুভাল পাওয়ার জন্য এসইও করাটা অনেক বেশি জরুরী বর্তমান সময়ের জন্য। কারণ এসইও ছাড়া আপনি ভিজিটর পাবেন না তেমন বেশি।

 

৫. গুরুত্বপূর্ণ পেজগুলো যুক্ত করুন 

আপনার সাইটে গুরুত্বপূর্ণ পেজগুলো অবশ্যই রাখুন। গুরুত্বপূর্ণ পেজ বলতে About Us, Contact Us, Privacy Policy এই তিনটি পেজকে বোঝানো হয়েছে। দ্রুত গুগল অ্যাডসেন্স অ্যাপ্রুভাল বা Adsense Approval পেতে হলে অবশ্যই আপনার সাইটে এই তিনটি পেজ থাকা লাগবে। 

 

৬. কপরাইটযুক্ত ছবি এড়িয়ে চলুন

নতুন ব্লগাররা সরাসরি গুগল থেকে ডাউনলোড করে তাদের ব্লগে ছবি ব্যবহার করেন। এটা কিন্তু মারাত্মক ভুল। কপিরাইট ইস্যু থাকলে সেটি আপনার এডসেন্স এপ্রুভ এর ক্ষেত্রে যেমন সমস্যা করবে তেমনি রাঙ্কিং এর ক্ষেত্রেও সমস্যা করবে। সুতরাং কখনো কপিরাইট ছবি ব্যবহার করবেন না। Canva, Pixabay, Pexels সাইটগুলো থেকে ছবি ডাউনলোড করে ব্যবহার করতে পারেন। এগুলো কপিরাইট মুক্ত।

 

৭. কপি পোস্ট এড়িয়ে চলুন

অন্যের পোস্ট কপি করা থেকে বিরত থাকুন। যদি আপনি ভাবেন অন্যের পোস্ট কপি করে আপনি ব্লগিং করবেন তাহলে মারাত্মক বোকামির কাজ করছেন। গুগল এতটা বোকা নয় যে আপনি কপি করে পোস্ট করবেন আর গুগল বুঝতে পারবে না। আপনার সাইটে কপি কনটেন্ট থাকলে আপনি এডসেন্স পাবেন না কখনো। সুতরাং অবশ্যই নিজের লেখা সাইটে পোস্ট করবেন।

 

৮. সাইটের বয়স হতে দিন

দ্রুত গুগল অ্যাডসেন্স অ্যাপ্রুভাল বা Adsense Approval এর ক্ষেত্রে ওয়েবসাইটের বয়স বিবেচনা করা হয়। আপনার ওয়েবসাইটের বয়স অন্তত ১-২ মাস হতে দিন। তবে সবচেয়ে বুদ্ধিমানের কাজ হবে অন্তত ৫-৬ মাস ডোমেইনের বয়স পূর্ণ হওয়ার পর এপ্লাই করাটা। এতে গুগলের আপনার সাইটের প্রতি বিশ্বাস তৈরি হলে সহজেই আপনি প্রথমবারের এডসেন্স পেয়ে যাবেন।

 

৯. অন্য কোম্পানির বিজ্ঞাপন সরিয়ে ফেলুন

Adsense Apply করার পূর্বে অন্যান্য এডভার্টাইজিং কোম্পানির বিজ্ঞাপন (Ad) আপনার সাইট থেকে সরিয়ে ফেলুন। আবেদনের পূর্বে আপনার সাইটে অন্য বিজ্ঞাপন কোম্পানির বিজ্ঞাপন থাকলে আপনার অনুরোধ বাতিল হতে পারে।

দ্রুত গুগল অ্যাডসেন্স অ্যাপ্রুভাল পাওয়ার অন্তরায় হলো গুগল অ্যাডসেন্স ছাড়া অন্য কোন কম্পানির অ্যাডসেন্স ব্যবহার করা। তাই এই বিষয়টা আমরা সবাই লক্ষ্য রাখবো।

 

১০. ইউনিক ও হাই কোয়ালিটি আর্টিকেল পাবলিশ করুন

আপনার ওয়েবসাইটে অবশ্যই ইউনিক এবং হাই কোয়ালিটি আর্টিকেল পাবলিশ করুন। বেশিরভাগ ক্ষেত্রে দেখা যায় এডসেন্সের জন্য আবেদন করলে ‘Low Value Content’ আসে। এর পেছনের একটি কারণ হচ্ছে ভ্যালু নেই এমন কনটেন্ট পাবলিশ করা। গুগলে অনেক বছর আগে পাবলিশ করা হয়েছে সেটা যদি আপনি বর্তমানে পাবলিশ করেন তবে সেটা ইউনিক হবে না। চেষ্টা করুন নতুন নতুন কনটেন্ট আইডিয়া খুঁজে বের করে সেগুলোর উপরে হাই কোয়ালিটি আর্টিকেল পাবলিশ করতে।

 

১১. আপনার বয়স ১৮ বছর কিনা

দ্রুত গুগল অ্যাডসেন্স অ্যাপ্রুভাল অনুমোদন পেতে হলে আপনার বয়স অবশ্যই ১৮ হতে হবে। কেননা Adsense Company ১৮ বছরের নিচে কাওকে তাদের সার্ভিস ব্যবহার করতে দেয়না। আপনি যে জিমেইল বা তথ্য দিয়েছেন তাতে আপনার বয়স অবশ্যই ১৮ বছর হতে হবে।

 

১২. ট্রাফিক সোর্স বা Traffic Source 

দ্রুত গুগল অ্যাডসেন্স অ্যাপ্রুভাল বা Adsense পাওয়ার ক্ষেত্রে যদিও ট্রাফিক ততটা বিবেচ্য নয় কিন্তু এটি দ্রুত গুগল অ্যাডসেন্স অ্যাপ্রুভাল বা Adsense Approval পাওয়ার ক্ষেত্রে আপনাকে এক ধাপ এগিয়ে নিয়ে যাবে। আবেদনের পূর্বে থেকে যদি আপনার সেট গুগল থেকে অর্গানিক ট্রাফিক আসে, তাহলে এপ্লাই করলে সহজেই আপনি এডসেন্স পাবেন। কারণ অর্গানিকভাবে ট্রাফিক আসে এমন সাইট গুগল অনেক পছন্দ করে।

 

শেষ কথা বা উপসংহার 

আজকে আমরা দ্রুত গুগল অ্যাডসেন্স অ্যাপ্রুভাল পাওয়ার উপায়গুলো সম্পর্কে জানলাম। উল্লেখিত উপায়গুলো মেনে যদি আপনি Adsense Apply করেন তাহলে আপনি আশাবাদী আপনি অবশ্যই এপ্রুভাল পাবেন।

About ডিজিটাল আইটি সেবা

ডিজিটাল আইটি সেবা অনলাইন ভিত্তিক সেবা মূলক প্রতিষ্টান। এখানে অনলাইনে আয়, ডিজিটাল শিক্ষা, ফেইসবুক মার্কেটিং সহ আরও অনেক কাজের ধারণা প্রদান করা হয়। এটি দেশের আর্থিক সামাজিক অবস্থার উন্নতির জন্য কাজ করে থাকে।

View all posts by ডিজিটাল আইটি সেবা →

One Comment on “দ্রুত গুগল অ্যাডসেন্স অ্যাপ্রুভাল পাওয়ার ১২ টি টিপস”

Leave a Reply

Your email address will not be published.