What is google AdSence ? ব্লগারে গুগল এপ্রুভ হওয়ার শর্তসমূহ

গুগল এ্যাডসেন্স এপ্রুভালের কিছু শর্ত বা নিয়ম আছে যেগুলোনা মানার কারণে আমাদের গুগল এ্যাডসেন্স অ্যাপ্রুভ হয় না সাধারণত। আমরা যদি নিয়মগুলো মেনে আবেদন করি তাহলে খুব অল্প সময়ের মধ্যেই এপ্রুভ হবে আশা করা যায়। 

Blogger বা ব্লগারে AdSence এরমাধ্যমে অনলাইনে আয় করা যায়। গুগল এ্যাডসেন্স এর জন্য ইউনিক আর্টিকেল ও অর্গানিক ভিজিটর বাধ্যতামূলক।


What is google AdSence


সাধারণ কিছু শর্ত যা জেনে রাখা অনেক জরুরী


(১) আবেদনের জন্য আপনার বয়স অবশ্যই ১৮+ হতে হবে। 

(২) আপনার ডোমেইনের বয়স ১ মাস হলে ভালো হয় তবে পোস্ট এর বয়স বা ভিজিটর বেশি থাকলে ১ মাস শর্ত গ্রহনযোগ্য নয়। 

(৩) সাইটে অবশ্যই Home, Privacy, About Us, Contact Us এই চারটি অপশান রাখা বাধ্যতা মূলক। আরো রাখতে পারেন Terms & Condition, Disclosure, Cookies Policy ইত্যাদি। এতে করে 

(৪) আপনার সাইটে বেশ কয়েকটি ক্যাটাগোরি এবং সব ক্যাটাগোরিতে অবশ্যই কিছু পোস্ট থাকতে হবে। 

(৫) পোস্টগুলো হাই কোয়ালিটির চাইতে ইউনিক হওয়ার গুরুত্বপূর্ণ। কারণ গুগল সব সময় চায় তার কাছে নেই এমন তথ্য জমা রাখতে। 

(৬) সাইটের থিম পেইড হলে সবচেয়ে ভালো হয় তবে যে কোন ভালো থিম হলেই হবে। 

(৭) প্রতিদিন কিছু ভিজিটর থাকতে হবে ২০-৩০টা হলেই হবে তবে বেশি হলে ভালো হয়। 

(৮) সাইটের বাউন্স রেট কম হতে হবে। 

(৯) পোস্ট এর সংখ্যা ২০+ হলে ভালো হবে তবে ওয়ার্ড সংখ্যা ১০০০+ হতে হবে কারণ কম সংখ্যার ওয়ার্ড

গুগল ইনডেক্স হতে অনেক বেশি সময় লাগে। 

(১০) অনেকেই ব্যকলিংকের জন্য অন্যের ব্লগে কমেন্ট করে থাকে আর এতে করে অনেক সময় No Follow Back-link তৈরি হয় যেটা আপনার সাইটের জন্য খারাপ। 




উপরের এই কয়টি মিনিমাম শর্ত পূরণ করে আপনি পোস্টগুলো ১ মাস হলেই বা কম হলেও হবে আবেদন কররেই আশা করা যায় যদি আপনার নামে আগে কোনগুগল এ্যাডসেন্স একাউন্ট না হয়ে থাকে তবে এপ্রুভ হয়ে যাবে সমস্যা হবে না। 





অনেক সময় দেখা যায় যে, একটা জিমেইল দিয়ে আবেদন করার পর এই জিমেইলে আপানর আরও একটা এ্যাডসেন্স একাউন্ট আছে এমন দেখায়। এটা আসলে এমনিতেই দেখায়। এটা দেখানোর কারণ আছে। যেমন,


(১) আপনার নামে একাধিক জিমেইল তৈরি থাকলে।

(২) আপনার আইডি কার্ড ব্যবহার করে অনলাইনে কোন পেমেন্ট একাউন্ট করা থাকলে।

(৩) টিন সার্টিফিকেট যদি আপনার নামে থেকে থাকে। 


আসলে একজন ব্যক্তির নামে আগে কোন পেমেন্ট বা একাধিক জিমেইল তৈরি থাকলে এমনটা দেখায়। সেক্ষেত্রে কি করবেন সেটাই জানার বিষয়। 


এমন যদি মেইল আসে অ্যাডসেন্স আবেদন করার পর তাহলে আপনি নতুন একটা জিমেইল তৈরি করবেন এবং সেটাতে আপনার ব্লগারের এডমিন দেবেন এবং সেই জিমেইল দিয়ে নতুন আইডি দিয়ে আবেদন করবেন। 


আরো পড়ুন >> ব্লগারে ভিজিটর বাড়ানোর ১৫টি টিপস।


অনেক সময় বাসার এমন কেউ থাকে যারা জিমেইল ব্যবহার করে না এমন তাদের নামে আবেদন করতে পারেন তাহলেই এই সমস্যা আর আসবে না বা হবে না ইনশাআল্লাহ।


আরো পড়ুন >> ভালো কনটেন্ট লিখার নিয়মগুলো জানুন।

আরো পড়ুন >> ব্লগারের জন্য কেন মাস্টার ডোমেইন কিনবেন ?

আরো পড়ুন >> কিভাবে ব্যাকলিংক তৈরি করবেন ?


বি. দ্র. এই আর্টিকেলটি ব্লগার সাইটের জন্য। 

Leave a Comment