ডাইনামিক ওয়েবসাইট কি ? নিজের ওয়েবসাইট থাকার ১০টি সুবিধা

আস-সালামু আলাইকুম আলহামদুলিল্লাহ আমি ভালো আছি আশা করি আপনারা যারা এই মূহূত্বে এই আর্টিকেলটি পড়ছেন তারা সবাই ভালো আছেন। আজকে আমি আলোচনা করবো অনেক গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয় নিয়ে যা বর্তমানে অনেক জনপ্রিয় বলা যায়। 

What is Website


ডাইনামিক ওয়েবসাইট কি ? নিজের ওয়েবসাইট থাকার ১০টি সুবিধা সহ আরও কিছু বিষয় নিয়ে আলোচনা করবো এখানে। সবার আগে চলুন জেনে নিই ওয়েবসাইট (Website) কি ? সেই বিষয়টা সম্পর্কে।

ওয়েবসাইট (Website) কি ?

সাধারণত ইন্টানেটে আমরা কোন প্রতিষ্ঠানে যে সকল তথ্য, ছবি, অডিও বা ভিডিও দেখতে পাই যা একাধিক পৃষ্ঠার মত থাকে সেই ধরনের পেজকেই আমরা ওয়েবসাইট (website) বলে থাকি। ওযেব সাইট হলো কোন নির্দিষ্ট ওয়েব সার্ভারে জমা করে রাখা বিভিন্ন ধরনের সেই ওয়েবসাইট এর সাথে সম্পৃক্ত ওয়েব পৃষ্ঠা, আলোডকৃত বিভিন্ন ধরনের ছবি, অডিও, ভিডিও ও অন্যান্য বিষয় যেমন, Infographic, GIP, Animation ইত্যাদি ডিজিটাল তথ্যের সমাহার বা সমষ্টি। যা আমরা ইন্টারনেট ব্যবহার করে মোবাইল, ট্যাব বা কম্পিউটারের মাধ্যমে দেখতে বা একসেস করতে পারি।

অর্থ্যৎ আমি যদি আপনাদেরকে উদহারণ দিয়ে বোঝাতে চাই তবে ডিজিটাল আইটি সেবা অথবা লেখাপড়া বিডি ইত্যাদি ওয়েব সাইটের উদাহারন দিতে পারি। যেমন, ডিজিটাল আইটি সেবা ওয়েবসাইটটির মাধ্যমে আপনি অনলাইনে আয় কিভাবে করবেন, টেকনোলোজি নিয়ে বিভিন্ন আর্টিকেল, শিক্ষা ও আমাদের জীবনের অনেক গুরুত্বপূর্ণ তথ্য এখানে আলোচনা করা হয়। আবার কিছু ওয়েবসাইটের মাধ্যমে আপনি শুধু ব্যবসা করতে পারবেন তাকে ই-কমার্স ধরনের ওয়েবসাইট বলা হয়। আর এই বিভিন্ন ধরনের ওয়েবসাইটের সমষ্টিকেই মূলত ওয়েবসাইট হিসেবে বিবেচনা করা হয়। আশা করি ওয়েবসাইট কি এ নিয়ে আপনাদের মনে আর কোন কনফিউশান থাকবে না।

ইন্টারনেটে আপনিও যদি মনে করেন আপনার নিজের নামের বা নিজের প্রতিষ্ঠানের জন্য একটি ওয়েবসাইট থাকুক তাহলে আপনাকে কিছু জিনিস অনুসরণ করতে হবে। যার মাধ্যমে আপনি নিজের বা প্রতিষ্ঠানের নামে ওয়েবসাইট তৈরি করতে পারবেন। এজন্য আপনাকে নিচের ৩টি বিষয় অনুসরণ বা ফলো করতে হবে।

(ক) প্রথমত আপনাকে অবশ্যই একটি ডোমেইন কিনতে হবে নিজের বা প্রতিষ্ঠানের নামে।
(খ) ডোমেইনটি ইন্টারনেটে রাখার জন্য হোস্টিং করতে হবে।
(গ) এবং শেষে আপনাকে একটা ডিজাইন করতে হবে।

নিজের ওয়েবসাইট থাকার ১০টি সুবিধা


এজন্য আপনি ইচ্ছে করলে আমাদের এই ওয়েবসাইট (website) মানে ডিজিটাল আইটি সেবা এটিও দেখতে পারেন। এটাও একটা ওয়েবসাইট যা উপরের তিনটা ফলো করে করা হয়েছে। এভাবে আপনি চাইলে এরকম একটা ওয়েবসাইট বানাতে পারেন। উপরে আমরা জেনেছি ওয়েবসাইট (Website) কি। সেখানে একটা শব্দ পরিচিত হয়েছি সবাই তা হরো ওয়েব পেজ (Web Page) এখন জানবো আসলে ওয়েব পেজটা কি আর কিভাবে ওয়েব পেজ তৈরি করা হয়।

ওয়েব পেজ (Web Page) কি ও কিভাবে তৈরি করা যায় ওয়েব পেজ।

ওয়েব পেজ (Web Page) হলো ওযেবসাইটের এর একটা অংশ। একটা ওয়েবসাইট বড় একটা অংশ যার মধ্যে অনেকগুলো ওয়েব পেজ (Web Page) থাকে। অর্থ্যৎ একটা ওয়েবসাইটে বেশ কিছু ওয়েব পেজ (Web Page) বা ওয়েব পৃষ্ঠা থাকে। এই পেজগুলো বিভিন্ন ধরনের ভাষায় হয়ে থাকে যেমন, html ধরনের। html document যা http protocol এর মাধ্যমে ওয়েব সার্ভার থেকে ইন্টারনেট ব্যবহারির ওয়েব ব্রাউজারে স্থানান্তরিত হয়। আর আমরা একটা ওয়েব সাইটে ঢোকার সাথে সাথেই যেই ওযেব পেজটা দেখতে পাই, সেই পেজটাকে বলা হয় হোম পেজ। অর্থ্যৎ একটা ওয়েবসাইটে অনেকগুরো ওয়েব পেজ (Web Page) থাকে।

ওয়েবসাইট শুরুর দিকে একটা ওয়েব সাইটে খুব কম সংখ্যকই ওয়েব পেজ (Web Page) থাকে। দিন যত বাড়তে থাকে ওয়েব পেজ (Web Page) এর সংখ্যাটাও ততটাই বাড়তে থাকে। আমরা ফেইসবুক বা ইউটিউবের মত ওয়েবসাইটের পেজ গননা করে শেষ করতে পারবো না। এখানে যতগুলো ইউজার আছে তাদের নিজের আলাদা আলাদা সাইট বা পেজ আছে যেটাকে আপনি মাল্টিভেন্ডর টাইপের ওয়েবসাইটও বলতে পারেন।

ডিজিটাল আইটি সেবা


উপরে যেই ছবিটা দেখা যাচ্ছে এটা আমাদের ডিজিটাল আইটি সেবা ওয়েব সাইটের হোম পেজ। এখানে যতগুলো পোস্ট করা আছে সেগুলো আলাদা আলাদা একেকটা ওয়েব পেজ হিসেবে বিবেচিত হয়। অর্থ্যৎ একটা ওয়েব সাইটে অনেকগুলো ওযেব পেজ থাকতে পারে। আশা করি ওযেব পেজ সম্পর্কে আপনার ধারনটা পরিষ্কার হয়েছে। ওয়েব পেজ সম্পর্কে আরও বিস্তারিত জানার জন্য আমি আরেকটি পিকচার দিচ্ছি যেখানে আপনি আরও সহজেই বুজতে পারবেন ওয়েব পেজ আসলে কি ?

web page ওয়েব পেজ কিভাবে বানানো যায়


উপরের ছবিটিতের আপনি একটা পেজের অনেকগুলো পোস্ট দেখতে পাচ্ছেন। যদিও আমি মাত্র দুইটা পোস্ট এর স্কিনশর্ট দিয়েছি তবে এভাবেই সাধারণত ওয়েবসাইটে ওয়েব পেজগুলো থাকে। আপনি একটা সাইটে অনেকগুলো পেজ তৈরি করতে পারবেন। আ্পনি আপনার প্রয়োজন অনুসারে ওযেব পেজগুলো তৈরি করবেন। ওয়েব সাইট তৈরি করা একটু কঠিন বা সময়ের কাজ কিন্তু একটা ওয়েব সাইট থাকলে সেখানে ওয়েব পেজ তৈরি করা অনেক সহজ কাজ।

আসুন এখন জেনে নেওয়া যাক ওয়েবসাইট (Website) থাকার সুবিধাগুলো। নিজের ওয়েবসাইট থাকার ১০টি সুবিধা নিয়ে নিচে আলোচনা করবো। আমি অবশ্য বিস্তরিত বলবো না সংক্ষেপে শুধু পয়েন্টগুলোই আলোচনা করার চেষ্টা করবো এখানে।

(১) ব্যবসার প্রসার ঘটাতে সাহায্য করে।

(২) তথ্য সহজেই সবাই দেখতে পারে।

(৩) ওয়েবসাইটের তথ্য দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে।

(৪) লিখা, অডিও ও ভিডিওসহ আরোও অনেক কিছু যুক্ত করা যায়।

(৫) প্রয়োজনীয় তথ্য যে কোন সময় ব্যবহার করা যায়।

(৬) বিশ্বস্ততা অর্জন করা সহজ হয়।

(৭) দেশ ও বিদেশের সাথে দ্রুত যোগাযোগ করা যায়।

(৮) তথ্য অনেক দিন ধরে রাখা যায়।

(৯) সরকারী ও বেসরকারী নিয়োগ বা তথ্য রাখা সুবিধা হয়।

(১০) আয় করার একটা মাধ্যম হিসেবেও ব্যবহার করা যায়।

উপরের ১০টা পয়েন্ট অনেক গুরুত্বপূর্ণ । এছাড়াও ওয়েবসাইটের মাধ্যমে আরও অনেক সুবিধা হয়। তবে আজকের পোস্টটিতে আমি শুধূ পয়েন্টগুলোই আলোচনা করবো। বিস্তারিত আলোচনা পড়ার জন্য Click here লিংকটিতে গিয়ে পড়তে পারেন।

বর্তমান সময়ে আপনার নিজের প্রতিষ্ঠানের নামে একটা ওয়েবসাইট থাকবে বা আপনার নিজের নামেই একটা ওয়েব সাইট থাকবে এটা একটা কমন বিষয়। ধারনা করা হচ্ছে আগামী কয়েক বছরের মধ্যে আমাদের দেশে সকল কম্পানিগুলো বাধ্য হয়েই বা তাদের ব্যবসার সুবিধার জন্য হলেও ওয়েবসাইট তৈরি করার দিকে অনেক বেশি আগ্রহী হবে যদিও বর্তমানে অনেকেই ই-কমার্স সহ আরও নানা ধরনের ওয়েবসাইট তৈরি করছে। সরকারী বিভিন্ন আবেদন এখন আর আগের মত হাতে লিখে হয় না সবগুলোই অনলাইনের মাধ্যমে হয়ে থাকে। আপনি সরকারী বিভিন্ন সেবাও এখন অনলাইনের মাধ্যমে পেয়ে থাকবেন যা আগে এরকম ছিল না। তাই দিনদিন যে আমাদের দেশে অনলাইন সেবা বৃদ্ধি পাচ্ছে তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না।

আমাদের সাথে যোগাযোগের ঠিকানাঃ

ফেইসবুক লিংক = ডিজিটাল আইটি সেবা বা www.facebook.com/digitalitseba


টুইটার লিংক = ডিজিটাল আইটি সেবা বা https://twitter.com/digitalitseba


ই-মেইল = [email protected]

Leave a Comment