গুগল অ্যাডসেন্স কি এখন ফ্রি ডোমেইনে পাওয়া যাবে ?

কয়েকদিন আগে ডোমেইন নিয়ে একটা পোস্ট করেছিলাম! পোস্টে লিখেছিলাম ফ্রি সাব ডোমেইনের যুগ এখন নেই! আমার ওই পোস্টে অনেকে আমার সাথে তর্ক লাগিয়ে দিয়েছিলেন! ফ্রি ব্লগস্পটে তো অ্যাডসেন্স দেয়, এজন্য !


ব্লগস্পটের ডোমেইন সম্পর্কে জানুন 


বিষয়টা আমি একটু ক্লিয়ার করি; যাতে সবার হেল্প হয়! আমার ওই পোস্টে আমি সাব ডোমেইনের যুগ নেই বলতে, ফ্রি ব্লগস্পট সাব ডোমেইনে অ্যাপ্রুভ পাওয়া যায় না বুঝাইনি! ফ্রি সাব ডোমেইন দিয়ে; প্রফেশনাল ব্লগার হিসেবে ব্লগিং ক্যারিয়ার গড়া বর্তমানে পসিবল না বুঝিয়েছি! কেন সেটা ব্যাখ্যা করছি!


ব্লগার কিংবা ব্লগস্পট হলো, ওয়ার্ল্ডের সবচেয়ে পুরোনো সিএমএসগুলোর মধ্যে অন্যতম! ব্লগস্পটের যাত্রা শুরু ১৯৯৯ সালে! মানুষকে ফ্রিতেই, গুগলের সার্ভার ইউজ করে ব্লগিং করার সুযোগ প্রথম দিয়েছিল এই ব্লগস্পট। তো, শুরু ১০ বছর ব্লগস্পটের জনপ্রিয়তা অনেক তুঙ্গে ছিল! তখন, ফেসবুক – টুইটার এসব কিচ্ছু ছিল না! ব্লগিং প্ল্যাটফর্ম বাদেও স্যোশাল মিডিয়া হিসেবে ইউজ হতো, ব্লগস্পট! এমনিতে ট্রাফিক র‍্যাংকে বিশ্বের সেরা ২০ টি সাইটের মধ্যে থাকত এটা!


তো, এরপর ব্লগস্পটে মনিটাইজেশন সিস্টেম আসে! সবাই আর্নিং করা শুরু করে। তখন প্রিমিয়াম ডোমেইন এখনকার মতো ইজিলি এভেইলেবল ছিল না! বড়ো বড়ো কোম্পানি বাদে, পার্সোনালি ডোমেইন কেনায় ইন্টারেস্টেড ছিল না অনেকেই! তাই, অনেকের মেজর ইনকাম সোর্স হয়ে যায় ব্লগস্পট। 


ব্লগারের জন্য ফ্রি প্রিমিয়াম থিম 




আমি প্রথম ২০১২ সালে ল্যাপটপ কিনি! জুম আল্ট্রা মডেল চালাতাম, যেটা এখন ফুললি অফ! তো, অনলাইনে কীভাবে আয় করা যায় খুঁজতে গিয়ে ব্লগস্পট সম্পর্কে জানতে পারি! আমার প্রথম বানানো ব্লগ ছিল ব্লগস্পটে! বাট ওটা দিয়ে আমি কিছু করতে পারিনি; কারণ স্কুলের স্টুডেন্ট হওয়ায় তখন আগামাথা কিছুই বুঝতাম না!


যাই হোক, মেইন কথায় আসি! এখন স্যোশাল মিডিয়া হিসেবে ফেসবুক পপুলার! অনেকে হাজার হাজার ফলোয়ারের কারণে ফেসবুক সেলেব্রেটি হয়ে যায়! তখন ব্লগস্পটে ফলোয়িং সিস্টেম ছিল! এখনো আছে! বাট সিস্টেম পাল্টে গেছে!


আগে ফেসবুকের নিউজ ফিডের মতো একটা পেজ ছিল, ওখানে বিভিন্ন পোস্ট শো করত! সেখান থেকে যার লেখা ভালো লাগে থাকে ফলো করা যেত! এখন ফলো করার জন্য সাইটের অ্যাড্রেস লিখে ভিজিট করতে হয় কিংবা রিডার লিস্টে দিয়ে ওই সাইটের লিংক অ্যাড করতে হয়! বেশ ঝামেলার কাজ! আর রিডিং লিস্টের ফিডে ফলো করা ব্লগের পোস্ট দেখায়! আগে নিউজ ফিডের মতো পেজে পপুলার ব্লগগুলোর পোস্ট দেখানো হতো, এমনকি ফলোয়ার না হলেও!



তো, এই ফলো অপশনের কারণে কারও কারও ব্লগে লাখ লাখ ফলোয়ার হয়ে গেছিল! এই ব্লগ সেলেব্রেটিরাই মনিটাইজ করে অ্যাডসেন্স থেকে ভালো পরিমাণ ইনকাম করতে পারত! এখনো পারে! কারণ তাদের পোস্টের নোটিফিকেশন লাখ+ ফলোয়ারের কাছে ইমেইলের মাধ্যমে চলে যেত, আর পোস্টগুলো সবার হোম ফিডে চলে যেত! তো, ফেসবুকে আমরা পোস্ট দিলেই যেমন ফ্রেন্ড – ফলোয়ারদের থেকে লাইক – কমেন্ট পাই, তেমনি ব্লগস্পটে পোস্ট দিলেই ফলোয়ার + ব্লগস্পট ইউজারদের থেকে তারা লাইক কমেন্ট পেত, সাথে ফ্রি ট্রাফিক আর অ্যাড ক্লিক! 


এর ফলে ওরা সার্চ ট্রাফিক ছাড়াই, অন্য স্যোশাল মিডিয়া ট্রাফিক ছাড়াই, ব্লগস্পট থেকেই হিউজ পরিমাণ ট্রাফিক পেত যার মাধ্যমে ভালো ইনকাম করে নিত!



কিন্তু ব্লগস্পট তখন চলত ইংরেজিতে! অ্যাডসেন্স দিত ইংরেজি কন্টেন্টে! বাংলা কন্টেন্টে, বাংলা সাইটে অ্যাডসেন্স এসেছে ২০১৭ সালে মাত্র! তো, এখন আগের সিস্টেম কিচ্ছু নাই! এখন আপনি ফ্রি ব্লগস্পট সাইট খুললে, সেটার পোস্ট ফ্রিতে কোনো ফিডে শো করে না! লাখ তো দূরে থাক, এখন ব্লগস্পটে আপনি ১০০ ফলোয়ার পেতে পেতে বুড়ো হয়ে যাবেন, ডিরেক্টলি কেউ ফলোয়ার না হলে! 


সিস্টেম তো চেঞ্জ হয়েছে হয়েছে; এর মধ্যে মাত্রারিক্ত হারে বেড়েছে, প্রিমিয়াম ডোমেইনের ব্যবহার! কারণ এখন ১০০ টাকা দিয়েও ডোমেইন পাওয়া যায়!



এরপর রকেট গতিতে এগিয়ে গেছে এসইও ইন্ডাস্ট্রি। ভালো, ভ্যালুয়েবল, হাই ট্রাফিক সার্চ ভ্যালু আছে, এমন কোনো কীওয়ার্ডে এখন ফ্রি সাব ডোমেইন র‍্যাংক করানো অলমোস্ট অসম্ভব একটা ব্যাপার! এরপর অ্যাডসেন্স অ্যাপ্রুভালের নিয়ম কানুন হয়ে গেছে কঠিন। প্রিমিয়াম ডোমেইন অ্যাপ্রুভ করানো যত সোজা, ফ্রি সাব ডোমেইন ততটা সোজা না! তারপরও সব নিয়ম কানুন মানলে, ভালো ইউনিক কন্টেন্ট দিলে আপনি ফ্রি সাব ডোমেইনে অ্যাডসেন্স পেয়ে যাবেন! কিন্তু তারপর?


তারপর আপনি ওই সাইট থেকে কিচ্ছু করতে পারবেন না! কারণ, ওই সাইট দিয়ে আপনি কোনো হাই সার্চ ভলিউমের ভ্যালুয়েবল কীওয়ার্ডের জন্য র‍্যাংক করতে পারবেন না! কারণ, এসইও এক্সপার্টরা আপনাদের মতো ফ্রি ডোমেইন নিয়ে সময় নষ্ট করতেছে না; প্রায় ভ্যালুয়েবল কীওয়ার্ড দিয়ে তারা তাদের প্রিমিয়াম ডোমেইনের সাইট র‍্যাংক করে ফেলেছে! তবে এখনো কিছু কিছু কীওয়ার্ড আছে; কিন্তু সেগুলো খুঁজে পেতে আপনার প্রিমিয়াম টুল ইউজ করতে হবে, যেগুলোর দাম ডোমেইন হোস্টিং থেকে অনেক বেশি! আপনি ডোমেইনের জন্য ১০০ টাকা খরচ করতে পারেন না, এসইও টুলের জন্যে ১০০০০ টাকা করতে পারবেন??



আরেকদল আছে, ফেসবুক কিংবা কোনো স্যোশাল মিডিয়া থেকে ফুল ট্রাফিক নেয়। অ্যাডসেন্স যারা অনেক আগে থেকে ইউজ করে সবাই জানে, কিছুটা হলেও অর্গানিক ট্রাফিক ছাড়া ফুল স্যোশাল ট্রাফিক নিয়ে সাইট কিছুদিন চলবে, এরপর অ্যাডসেন্স অ্যাডস লিমিট করে দেবে! আল্টিমেটলি রেজাল্ট জিরো।



প্রিমিয়াম থিম এর লিংক








আপনি ব্লগিং শেখার জন্য, কাজ প্র্যাকটিস করার জন্য ফ্রি সাব ডোমেইন ইউজ করতে পারেন! কিন্তু প্রফেশনাল ক্যারিয়ার গড়ার জন্য ইউজ করা মোটেই যুক্তিযুক্ত না! গ্রুপে অনেকে ব্লগস্পট সাইট অ্যাপ্রুভ করিয়ে, নিজেকে হিরো মনে করে! তাদের দেখে মোটিভেটেড হওয়ার কিছু নাই! নিয়ম ফলো করলে আপনিও পারবেন, কিন্তু এন্ডিং রেজাল্ট জিরো! উনারা শেষ পর্যন্ত ৬ মাস – ১ বছর পর ৫-৬ ডলার ব্যালেন্সসহ সাইটটা বিক্রি করে দেবে; নাহয় মানুষকে অ্যাপ্রুভাল সার্ভিস দেওয়া শুরু করবে! ওই সাইট থেকে ১০০ ডলার হতে ৫-১০ বছর লেগে যাবে এটলিস্ট!



যারা ২০১০ – ২০১৫ সালে ব্লগস্পটে ব্লগিং শুরু করছে, যাদের পুরোনো ফলোয়ার বেস আছে, তাদের জন্য ব্যাপারটা ঠিক আছে! কিন্তু নতুনদের ফ্রি ব্লগস্পটে কাজ করার কোনো মানে নেই! এজন্যই বলেছিলাম এটার যুগ এখন আর নেই! বিষয়টা আশা করি এখন সবাই বুঝতে পেরেছেন!



ব্লগার নিয়ে সুন্দর কিছু আর্টিকেল পড়ুন 








যারা যারা আমার সাথে তর্ক করেছিলেন, তাদেরকে ফ্রি সাব ডোমেইনের সাকসেস্ফুল নতুন তৈরি ব্লগের লিংক কিংবা প্রুভ দিতে বলেছিলাম! সবাই যা যা লিংক আমাকে দিয়েছে, সবগুলো অ্যাডসেন্স অ্যাপ্রুভাল পেয়েছে ঠিকই কিন্তু কোনো সার্চ ট্রাফিক নাই! ট্রাফিক ছাড়া অ্যাডসেন্সের ১ পয়সারও মূল্য নেই! আর ফ্রি ব্লগস্পট সাইট কোনো পপুলার কীওয়ার্ডের জন্য র‍্যাংক করছে, এমন কোনো প্রমাণও নাই! কিছু কিছু এক্সেপশন আছে, কিন্তু ওগুলা দিয়ে তো ক্যারিয়ার হয় না, ওগুলা আপনার ক্ষেত্রে ঘটবেও না! যেমন- saw episode 4 এই কীওয়ার্ডে, একটা ফ্রি ওয়ার্ডপ্রেস সাব ডোমেইনের ব্লগ ৪ নাম্বারে র‍্যাংক করে! এই সাইটে ভালো ট্রাফিকও আছে! কিন্তু এটা মনিটাইজ কোনো সাইট না, সাইটের ওনার শখ করে মুভি রিভিউ লেখে! ভালো অথোরিটি থাকায় এই সাইট র‍্যাংক করেছে!






ফ্রি সাব ডোমেইন দিয়ে ইংরেজি কন্টেন্টে ভালো কীওয়ার্ডে আপনার র‍্যাংক করার পসিবিলিটি প্রায় ০.০০০০০০০০১%। বাংলা কন্টেন্টে এখনো অনেক কীওয়ার্ড খালি আছে; কিন্তু এরপর কীওয়ার্ড খুঁজে নিতে, কীওয়ার্ড রিসার্চ করার জন্য আপনাকে এসইও এক্সপার্ট হতে হবে, দিন – রাত গোরুর মতো খাটতে হবে! তারপরও ওসব কীওয়ার্ড দিয়ে মাসে ১০০ ডলার প্রফিট করা সম্ভব কিনা তা নিয়ে যথেষ্ট সন্দেহ থেকে যায়!



সো, অ্যাডসেন্স অ্যাপ্রুভাল সিস্টেম শেখা, ব্লগিং এর ব্যাসিক শেখার জন্য ব্লগস্পট এর সাব ডোমেইন ইউজ করলে ঠিক আছে! কিন্তু প্রফেশনাল ব্লগিং ক্যারিয়ার গড়তে চাইলে, অন্তত একটা ডট কম ডোমেইন কিনে শুরু করার ট্রাই করুন!
লেখাটা অনেক বড়ো হয়ে গেছে! আজকে আর না! সবাই ভালো থাকবেন!




বি. দ্র. পোস্টটি কপি করা ফেইসবুক পোস্ট থেকে।

Leave a Comment