গুগল অ্যাডসেন্স এর পিন ভেরিফাই সমস্যা হলে যেভাবে NID দিয়ে ভেরিফাই করবেন

ব্লগার বা ওয়েবসাইট কি ? জানার পর আমরা যখন একটা সাইট তৈরি করি তখন শুরুতে যতটা উৎসাহ থাকে আস্তে আস্তে সেটা কমতে থাকে নানা কারণে। এর আসল কারণ কাগজপত্রের সমস্যা। 


গুগল অ্যাডসেন্স এ অপ্রুভ হওয়ার পর পিন ভেরিফাই সমস্যাটা অনেক বেশি দেখা যায় অনেকেরেই। আর আজকের আর্টিকেলের মাধ্যমে কিভাবে এই সমস্যা থেকে মুক্তি পাবেন সেটা আলোচনা করবো। 



গুগল অ্যাডসেন্স এর পিন ভেরিফাই সমস্যা হলে যেভাবে NID দিয়ে ভেরিফাই করবেন



গুগল অ্যাডসেন্স অপ্রুভ হওয়ার পর কি কি সমস্যা হতে পারে ? গুগল অ্যাডসেন্স অপ্রুভ হলে কি করতে হবে ? গুগল অ্যাডসেন্স এর পিন ভেরিফাই সমস্যা হলে যেভাবে NID দিয়ে কিভাবে ভেরিফাই করবেন সেটা জানানো হবে আজকের আর্টিকেলের মাধ্যমে। 



 
আজ অনেক দিন ধরে আমার একটা এডসেন্স পিন ভেরিফাই নিয়ে অনেক ঝামেলায় ছিলাম। কারণ এডসেন্স থেকে পিন পাচ্ছিলাম না।


আর আজকে সকালেই আমি NID দিয়ে এডসেন্স ভেরিফাই করেছি। কীভাবে কি কি করতে আজকে আপনাদের কে ঐ তাই বলবো। 

১ম এ আমাদের এডসেন্স এ যখন ১০$ হয়ে যায় তখনই সাথে সাথে গুগল আমাদের কে আমাদের পোস্ট অফিসে একটা পিন পাঠিয়ে দেয়। যাতে আমরা পিন টা দিয়ে এড্রেস ভেরিফাই করতে পারি।


তবে আমাদের ভয় টা তখন ই লাগে যখন দেখি ২৮ দিন হয়ে গেছে তখন ও পিন টা আসছে না। ১ম বার গুগল নিজেই আপনাকে পিন পাঠিয়ে দিবে আপনাকে কিছুই করতে হবে না শুধু আপনার পোস্ট অফিসে গিয়ে পিয়ন কে জানিয়ে রাখবেন যে আমেরিকা থেকে একটা চিঠি আসবে আর উনাকে কিছু বখশিশ দিয়ে রাখিবেন কারণ অনেক সময় ওরা চিঠি গুলা দিতে চায় না।


কিন্তু যখন দেখলেন ১ম বার ২৮ দিনের মধ্যে পিন আসলোনা তখন আপনি আপনার এডসেন্স এর পেয়মেন্ট এ গিয়ে ঐ খান থেকে আবার পিনের জন্য এপ্লাই করবেন। এখন মোট ২ বার হয়েছে৷


২য় বার ও যখন ২৮ দিনের মধ্যে আসেনি তখন আপনি আবার পেয়মেন্ট অপশন এ গিয়ে আবার পিনের জন্য এপ্লাই করবেন। এখন মোট ৩ বার হয়েছে।
কিন্তু যদি ৩য় বার ও ২৮ দিনের মধ্যে না আসে তাহলে আবার পেয়মেন্ট অপশনে গিয়ে আবার পিনের জন্য এপ্লাই করবেন। 

এখন ৪ বার হয়ে গেছে। কিন্তু না যখন দেখলেন এই বারও আপনার পিন আসে নি তখন গুগল আপনার এডসেন্স একাউন্ট এর সকল ওয়েব সাইট বা যদি চ্যানেল থাকে তাহলে ইউটিউব চ্যানেল এ এড দেখানো বন্ধ করে দিবে।
তাহলে কি আপনি আপনার কষ্টে অর্জিত টাকা গুলা পাবেন না ?


হুম পাবেন তার জন্য আপনার প্রয়োজন হবে যার নামে আপনার এডসেন্স একাউন্ট খুলা তার NID কার্ড বা বিদ্যুত বিল বা Bank statement না পাসপোর্ট।


উপরে এই গুলা মধ্যে যেকোনো একটা দিয়েই আপনি আপনার এডসেন্স পিন ভেরিফাই করতে পারবেন পিন চারাই।

আমি একটার কথা বলে দিচ্ছি। ১ম এ আপনার NID কার্ড এর দুই পাশের ছবি তুলে স্ক্যান করে JPG ফাইল করে নিবেন।

তারপরে যেখানে পেয়মেন্ট হোল্ড লেখা টা আছে ঐ খানে learn more নামে একটা অপশন আছে। ঐ খানে ক্লিক করুন।


তারপরে যে পেইজে নিয়ে যাবে তার একেবারে নিচে দিয়ে দেখবেন একটা লেখা আছে pin troubleshooter নামে ঐ খানে ক্লিক করবেন।

তার পরে আরেকটা পেইজ ওপেন হবে ঐ খানে ১ম এ আপনাকে জিজ্ঞেস করবে আপনার কি ১০ ডলার এর উপরে হয়ে গেছে?


আপনি yes করে দিবেন। তারপরে জিজ্ঞেস করবে আপনি কি পিন পেয়েছেন?
আপনি No করে দিবেন।


তারপরে জিজ্ঞেস করবে আপনি কি ৪ বার পিনের জন্য এপ্লাই করেছেন?
আপনি yes করে দিবেন।

তারপরে ওরা আপনাকে contact us নামে একটা অপশন দিবে ঐ টাতে ক্লিক করবেন।

তারপরে আপনাকে একটা ফর্ম দিবে ওই ফর্ম এ আপনার নাম + পাবলিশার আইডি + NID বা অন্য যেইটা দিয়ে ভেরিফাই করতে চান ঐ টার স্ক্যান কপি টা আপলোড দিয়ে দিবেন।

ব্যাস এই টুকুই তারপরে ওরা আপনাকে ২৪ ঘন্টার মধ্যে আপডেট জানাবে।
বিঃদ্রঃ আমার ৫ মিনিট পরে জানিয়ে দিয়েছে যে আমার পিন টা ভেরিফাই হয়ে গেছে। আশা করি বুঝতে পেরেছেন।

এত লেখা কখনো লেখি নাই ভুলভ্রান্তি হলে ক্ষমার দ্রৃষ্টিতে দেখবেন।

এছাড়াও ব্লগার ও গুগল অ্যাডসেন্স নিয়ে আরও কিছু আর্টিকেল পড়ার জন্য নিচের আর্টিকেলগুলো দেখে নিতে পারেন। 










অনেক ধন্যবাদ মূল্যবান সময় নিয়ে আর্টিকেলটি পড়ার জন্য। 

Leave a Comment