Best Paid Survey Sites USA তে সার্ভে ও সার্ভে Match না হওয়ার কারণ গুলো জেনে নিন

 আমাদের দেশের সাধারণত বেশির ভাগ মানুষ USA Servey বা usa paid survey গুলোতে কাজ করে থাকে। তাদের মধ্যে শতকরা যদি বলা হয় ২৫% ও জানে না এই কাজ সম্পর্কে। আসলে প্রত্যেকটা কাজ জেনে শুরু করলে সফলতা অনেক ভালো আসে। Best Paid Survey Sites USA সম্পর্কে আমার আগে একটা ব্লগ আছে সেটাতে কোন কোন usa paid survey sites এ কাজ করবেন সেটা দেওয়া আছে এবং কোন কোন সার্বে সাইট ভালো সে সম্পর্কে আলোচনা করা আছে। 

কেন এত বেশি আপডেট হচ্ছে ? 

আসলে আমেরিকার সার্ভে সাইটগুলোতে যেন বাইরের দেশের কেউ কাজ করতে না পারে সেই বিষয়টা নিশ্চিত করাই এর মূল কাজ। আর এই জন্যই তারা বিভিন্ন পদ্ধতি বের করে তা নিয়ে পদ্ধতিগত ও টেকনিক্যাল ভাবে আপডেট করছে। আমরা অনেক সময় বুঝি না কিভাবে আর কেন আপডেট চলছে। এটা আসলে মূল কারণ আপডেট করার। 

১. একটা Gmail এ একাধিক Account 

আমরা অনেক সময় একটা জিমেইল দিয়ে অনেকগুরো সাইটে একাউন্ট করি। এটা সাধারণত একটা ভুল পদ্ধতি। আপনি চেষ্টা করবেন একটা Gmail দিয়ে একটা বা দুইটা সাইটে একাউন্ট করার। এই ক্ষেত্রে আবার খেয়াল রাখবেন যেন একই কম্পানির সাইটে না হয় যেন। আপনি অস্টেলিয়ার Swagbcuks survey site Account করলে আবার usa survey sites এর Swagbcuks survey site তেও একাউন্ট করলেন। এতে করে আপনাকে স্প্যাম মনে করবেন। আমরা হয়তো অনেকেই জানি না যে, Mypoint survey site এবং Swagbcuks survey site একই কম্পানির। 

আপনি যখন একটা মেইল দিয়ে এই দুইটা সাইটেই কাজ করবেন হয়তো কিছুদিন করতে পারবেন। রোবট যখন চেক করবে তখন আপনার সব একাউন্ট ই ব্যান হয়ে যাবে। সেটা হয়তো হতে সময় লাগবে কিছুটা। তারমানে চেষ্টা করবেন একটা মেইল দিয়ে একটা সাইটে একটাই একাউন্ট করার বা দুইটা আলাদা আলাদা সাইটে একাউন্ট করার। 

২. প্রফাইলের প্রশ্নের গুরুত্ব না দেওয়া 

আমাদের দেশের প্রফাইডাররা বেশিভাগই বলে দেয় IT Profession দিয়ে কাজ করাতে। আমি কিছুদিন আগে দেখলাম যাদের আয় 150,000$ এর আসে পাশে বা উপরে তারা সার্ভে সাইটে কাজ করে না বা ফুল টাইম তো করেই না। আর আমাদের দেশের বেশিভাগ প্রফাইলই 150,000$ এর বেশি বা আসে পাশে। আসলে USA Survey sites এ কাজ করার আগে USA Envirnment সম্পর্কে ভালো ধারণা থাকতে হবে। কত দিতে হবে সেটা আপনি চিন্তা করে দেবেন আমি বলে দিলে সবাই এটাই যদি আবার দেন তখন আবার সমস্যা। যেটা দেবেন সেটা আবার আপনাকে মনে রাখতে হবে। 

Swagbucks Survey site এ বেশিভাগই প্রফাইলের প্রশ্ন মনে রাখে না। অন্য সাইটে তো Profile চেক করার ব্যবস্থা আছে আর এই সাইটে প্রথমবারেই শেষ। অনেক সময় Profile এর গুরুত্বপূর্ণ কিছু প্রশ্নের জন্য আপনাকে সার্ভে দেয় না বা ব্যান করে দেয়। 

৩. Browing এর সময় সতর্ক থাকতে হবে 

আমি অনেক কেই দেখেছি তারা Mozilla Firefox এ সার্ভে সাইট এ কাজ করার পাশা-পাশি Google Translator অন করে রাখে। আবার বাংলাদেশি Youtube চ্যানেল দেখে থাকে। আসলে এটা অনেক খারাপ একটা বিষয় কারণ আপনার Data গুলো সার্ভে সাইটের রোবট চেক করে থাকে আর আপনাকে যদি Out of USA বলে তাদের মনে করে তবে আপনার একাউন্ট এ র্সার্ভে আসবে না বা ব্যান হবে। আপনাকে এমন ব্যবহার করতে হবে যেটা দেখে সার্ভে সাইটের রোবট যেন মনে করে আপনি USA এর নাগরিক। অনেক সময় আপনি বাংলা ভিডিও গান শুনতেছেন আবার সার্ভেও করতেছেন এই বিষয়টা অনেক সময় আমাদের সার্ভে সাইটে ব্যর্থ হওয়ার পেছনে একটা কারণ হয়ে দাড়াই। 

আবার অনেক কেই একসাথে দুইটা বা তিনটা সাইট Open করে কাজ করে থাকেন। আসলে নিয়ম হলো আপনি যেটাতে কাজ করবেন সেটাতেই কাজ করে তারপর লগ আউট করে অন্যটাতে কাজ করা। আবার সপ্তাহে একবার হলেও ব্রাউজারের ডাটাগুলো ডিলিট করে ফেলা এতে করে আপনার সমস্যা কম হবে। যদিও সার্ভারে ডেটা জমা থাকে। তারপরেও কখন ভুলে বাংলাদেশী কোন সাইটে অন করা হয়ে গেলে সমস্যা হলেও হতে হবে। 

৪. সার্ভে করাতে বেশি সময় নেওয়া 

এটা অন্যতম একটা কারণ। কারণ আমরা অনেকেই নতুন যখন কাজ শুরু করি তারা ভাষাগত কম জানার কারণে বাংলায় রূপান্তর করার পর বুঝে তারপর সার্ভেতে কাজ করি তখন দেখা যাচ্ছে যে, একটা সার্ভে করার জন্য আপনাকে ১৫ মিনিট দিলেও আপনার তাতে লেগে যাচ্ছে ২০ মিনিট বা ২৫ মিনিট। সেক্ষেত্রে সার্ভে রোবটগুলো আপনাকে সন্দেহ করবে। আর বারবার এটা করার ফলে আপনাকে সার্ভে দেওয়া বন্ধ করে দেবে। কারণ আমেরিকার মানুষ জন্মগতভাবেই ইংরেজীতে ভালো আর তাদের উত্তর করতে বেশি সময় লাগার কথা না। সার্ভে সাইটে আগে রোবট ব্যবহার হতো না কিন্তু বর্তমানে আপডেট করেছে আর নরমালভাবে আগে যেমন কাজ করা যেতো এখন সেটা আর করা যাচ্ছে না। 

৫. Usa Survey IP সঠিক ব্যবহার করা 

আমরা অনেকেই দেখা যাচ্ছে যে, একটা আইপি একাধিক জন ব্যবহার করে থাকি। বিশষ করে যারা প্রভাইডার তারা এই কাজটা করে থাকে। অনেক সময় কিছু বাজে ভেরিফাইড নয় এরকম সাইটও এরকম কাজ করে থাকে। আসলে এরা আপনাকেও দেবে আবার আরেকজনের কাছেও দেবে। যদি অনেক আইপিতে দেখা যায় যে ৫ টা পিসিতে লগইন করা যাাবে। মানে মাসিক আইপিগুলো সাধারণত Down হয় না। আর তাই আপনি অনেক সময় পর্যন্ত ব্যবহার করতে পারবেন। অনেকেই দেখা যাচ্ছে যে কম টাকার আইপি দিচ্ছে তারা হয়তো একটা আইপি একাধিক ব্যাক্তির কাছে সেল করছে। এর ফলে সবার একাউন্ট ই সমস্যা হচ্ছে। আর এই সমস্যাটা বেশি হওয়ার কারণে বর্তমানে নতুন একাউন্টগুলোর ক্ষেত্রে সার্ভে রোবট মনেই করছে যে, আপনি স্ক্যামার তাই আপনাকে অনেক সময় শুরুতেই সার্ভে দিচ্ছে না বা মেইল দিয়ে লগইন করার সাথে সাথেই ব্যান দেখাচ্ছে বা বলা হচ্ছে যে, আপনার আইপিতে এই মেইল দিয়ে লগইন করা আছে। 

এটা আসলে আপনার মেইল দিয়ে নয় আরেকটা মেইল দিয়ে করা হয়তো সেটার জন্য দিচ্ছে। কারণ মাসিক আইপি গুলো ক্লিন করা হয় বিশেষ পদ্ধতিতে আর অনেক সময় Survey Robot সন্দেহ করলে সেই সিরিজের সকল আইপিই ব্যান করে দেয়। 

৬. না জেনে সার্ভে কাজ শুরু করা 

আমি কিছুদিন আগে একটা জরিপে দেখেছি যে, আমাদের দেশের যারা সার্ভে কাজ করে তারা বেশিভাগই কম বয়সী। তারা আবেগের কারনে অল্প বয়সে আয় করা যায় এই কারণে সার্ভে কাজের জন্য আগ্রহী হয়ে থাকে। আসলে এটা একটা ভুল কাজ কারণ আপনি হয়তো নিজের ক্ষতি করছেন মনে করছেন আসলে আপনি সবারই ক্ষতি করছেন। কারণ আপনার সিরিজের আইপি হয়তো আরও অনেকেই ব্যবহার করে থাকে আর আপনাকে যখন সার্ভে রোবট মনে করবে আপনি স্ক্যামার তখন ঐ সিরিজের সকল আইপিই ব্লক লিস্টে চলে যাবে। যেটা হয়তো আমরা যেখান থেকে আইপি কিনি তারাও বলবে না কারণ তাদের মূল লক্ষ্য হলো আইপি সল করা। আর কোন আইপি ভালো বা কোন সিরিজের আইপিতে ভালো কাজ হচ্ছে সেটা জানার জন্য অবশ্যই আপনাকে ভালো প্রভাইডারের থেকে আইপি নিতে হবে। এই জন্য সার্ভে করার আগে ভালো মত শিখতে হবে বিষয়গুলো। এখন তো অনেকেই টিটোরিয়াল বা ইউটিউবে অনেক শেখার ভিডিও পাওয়া যায় আপনি সেখান থেকেও শিখে নিতে পারেন। 

আমি মূলত আমার ভুলগুলো নিয়ে আলোচনা করেছি আর ছোট করে বলেছি কেন এত আপডেট আর কেনই বা আপডেট হয়। আসলে আপডেট আমাদের ভুলের কারণে হয়। তাদের সিকিউরিটি বাড়ানোটাই আমাদের কাছে আপডেট মনে হয়ে যায়। আর আমি যেই বিষয়গুলো নিয়ে কথা বলেছি এই বিষয়গুলো আপনি অনুসরণ করলে বুঝবেন যে, আসলে আমাদের ভুলটা কোথায়। আর কি কি বিষয় আপনার ঠিকমত মেনে চললে এই সমস্যা থেকে মুক্ত থাকবো। আমার মনে হয় নতুনরা যারা আসছে তাদের আরও বেশি জানার চেষ্টা করতে হবে। আর আসলে টাকা এই বিষয়টা মাথা থেকে ফেলে দিতে হবে। কোন কাজ না শিখলে একবারই করা যায় বারবার করার জন্য আপনাকে অবশ্যই জানতে হবে শিখতে হবে। আরও কিছু জানার থাকলে কমেন্ট করে জানাবেন চেষ্টা করবো জানানোর। ধন্যবাদ আপনাকে মূল্যবান সময় নিয়ে পড়ার জন্য। 


Leave a Comment