ই-কমার্স বিজনেসের ক্ষেত্রে সবচেয়ে বড় ৫টি ভুল

অনেক মানুষ আছে যারা সঠিকভাবে না জেনে বুঝেই, সহজ ,,অন্যের দেখাদেখি এবং দ্রুত ইনকামের আশায় ই-কমার্স বিজনেস শুরু করে। তার ফল হিসেবে বিজনেসের বিভিন্ন কাজ কিভাবে করবে তা বুঝে উঠতে পারে না। যেহেতু ই-কমার্স বিজনেস সম্পুর্ন অনলাইন ভিত্তিক, তাই এই বিজনেস করার জন্য অনেক জ্ঞান এবং অভিজ্ঞতার প্রয়োজন থাকে ।

চলুন জেনে নেওয়া যাক ই-কমার্স বিজনেসের ৫টি ভুল কি কি





১. সঠিক পণ্য বাছাই না করা

অনেক মানুষ আছে যারা সঠিকভাবে না জেনে বুঝেই, সহজ এবং দ্রুত ইনকামের আশায় ই-কমার্স বিজনেস শুরু করে। তার ফল হিসেবে বিজনেসের বিভিন্ন কাজ কিভাবে করবে তা বুঝে উঠতে পারে না। এবং তখন অল্পতেই হতাশ হয়ে যায়। আর সঠিক পণ্য বাছাই করতে পারলে এই সমস্যা থেকে মুক্ত থাকা সম্ভব। 



২. সঠিক প্লানিং না করা

প্ল্যানিং ছাড়া ই-কমার্স বিজনেস শুরু করলে ব্যর্থ হওয়াটাই স্বাভাবিক। এবং সেটা খুব তাড়াতাড়ি ।

৩. মার্কেটিং ও পার্সোনাল ব্রান্ডিং না করা 

শুরু করলেই কাস্টমার আসবে এই ধারনা ই-কমার্স বিজনেসের জন্য না। উপযুক্ত মার্কেটিং  ও পার্সোনাল ব্রান্ডিং ছাড়া এই বিজনেসে একটুও আগানো সম্ভব না।



৪. কাস্টোমারদের সাথে যুক্ত না থাকা

ই-কমার্স বিজনেসকে কাস্টমাদের সাথে কানেক্টেড করার জন্য চাই উপযুক্ত একটা প্ল্যাটফর্ম। আর আমরা অনেকেই শুধু পণ্য বিক্রি করার চেষ্টা করি তবে কাস্টোমারদের কথা অতটা ভাবিই না। তাদের মতামতের মূল্য দেওয়া এবং তাদের সাথে ভালো ব্যবহারের মাধ্যমে সবসময় ‍যুক্ত থাকার চেষ্টা করতে হবে। 



৫. পণ্য সম্পর্কে তথ্য না জানা 

অনেকেই ই-কমার্স এর কাজ করে অথচ সে পণ্য সম্পর্কে সঠিক তথ্যগুলো জানে না। যেমন, পণ্যের মান, মেয়াদ, সুবিধা ও অসুবিধা ইত্যাদি। সবসময় পন্যের ছবি ও পন্য সম্পর্কিত সকল  তথ্য   ক্লিয়ার রাখতে হবে কাস্টমারের কাছে ।





ই-কমার্স বর্তমানে সবচেয়ে সেরা একটি মাধ্যম। দেশী পণ্য নিয়ে বর্তমানে অনেকেই কাজ করছেন আর ই-কমার্স এর সাইটাতে অনেক কিছুই লাগে যা আমরা অনেকেই জানি না। আমি মাত্র ৫টা ভুলের কথা বলছি আরও কিছু জিনিস আছে যেগুলো আমরা করি অথচ সেগুলো করা উচিত না। সবসময় মনে রাখতে হবে যে, কাস্টোমারকে আপনার ও আপনার পণ্য সম্পর্কে যেন কোন ভাবেই নেগেটিভ ধারণা না রাখে। আর সেই জন্য আপনাকে অবশ্যই পণ্যের গুণমত ও সঠিক তথ্য সম্পর্কে সচেতন হতে হবে। 

Leave a Comment